১ রানেই নেই বাংলাদেশের ২ উইকেট

১ রানেই নেই বাংলাদেশের ২ উইকেট

খেলাধুলা লিড স্টোরি

ক্রীড়া প্রতিবেদক »

কেমার রোচ জুজু কাটাতেই হয়তো নিজে স্ট্রাইক না নিয়ে প্রথম বল খেলতে দিয়েছেন আরেক ওপেনার সাদমান ইসলামকে। কিন্তু এতে কোনো ফায়দা হয়নি তামিম ইকবালের। রোচের বল এড়িয়ে গেলেও তিনি আউট হয়েছেন রাহকিম কর্নওয়ালের বলে। একই ওভারে সাজঘরে ফিরে গেছেন নাজমুল হোসেন শান্তও।

একই ওভারে তামিম-শান্তর বিদায়ে দ্বিতীয় ইনিংসের প্রথম ২ ওভারে মাত্র ১ রানে দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে গেছে বাংলাদেশ দল। প্রথম ইনিংসে ক্যারিবীয়দের ২৫৯ রানে অলআউট করে ১৭১ রানের লিড পেলেও, দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুটা একদমই ভালো হলো না টাইগারদের।

এ রিপোর্ট লেখার সময় বাংলাদেশের রান ২ উইকেট হারিয়ে ২১। ২ রান নিয়ে সাদমান ইসলাম এবং ১৮ রান নিয়ে ব্যাট করছেন মুমিনুল হক।

তামিমের টেস্ট ক্যারিয়ারের আগের ৬০ ম্যাচে কখনও এমন হয়নি যে, তিনি ইনিংস সূচনা করেছেন কিন্তু প্রথম বল মোকাবিলা করেননি। অথচ চলতি টেস্টের দুই ইনিংসেই তিনি স্ট্রাইক ছেড়ে দিয়েছেন সাদমানের কাছে। প্রতিপক্ষের পেসার কেমার রোচের বলে ওয়ানডে ৭ ও টেস্টে ৩ বার আউট হওয়ার কারণেই হয়তো এ সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তামিম।

প্রথম ইনিংসে সফল হননি তামিম। টেস্ট ক্যারিয়ারে চতুর্থবারের মতো আউট হন রোচের বলেই। পরে আজ দ্বিতীয় ইনিংসেও সাদমানকে স্ট্রাইক দেন তামিম। রোচের প্রথম ওভার পার করে দেন সাদমান। দ্বিতীয় ওভার আক্রমণে আসেন কর্নওয়াল। প্রথম তিন বল দেখেশুনে খেলে চতুর্থ বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন তামিম। আগের ইনিংসে ৯ করলেও, এবার রানের খাতা খোলা সম্ভব হয়নি তার।

ইনিংসের শুরুতেই তামিমের বিদায়ের পর উইকেটে টিকতে পারেননি নাজমুল শান্তও। এক বল খুবই অলস এক শটে স্লিপে দাঁড়ানো জার্মেইন ব্ল্যাকউডের হাতে ধরা পড়েন তিনি। তামিম-নাজমুলের কেউই রানের খাতা খুলতে পারেননি। তৃতীয় উইকেটে খেলছেন ওপেনার সাদমান ও অধিনায়ক মুমিনুল হক।

উল্লেখ্য, ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ইনিংসে মাত্র ৬ রানের ব্যবধানে ৫ উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। মাত্র ২৩ বলের ব্যবধানে মিরাজ-তাইজুলদের এ ভেলকিতে ক্যারিবীয়রা অলআউট হয়েছে ২৫৯ রানে। বাংলাদেশ পায় ১৭১ রানের লিড।