জিম্বাবুয়ে-পাকিস্তান

টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাকিস্তানের কষ্টার্জিত জয়

খেলাধুলা লিড স্টোরি

ক্রীড়া প্রতিবেদক »

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে স্বাগিতক জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। হারারেতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে শেন উইলিয়ামসদের ১১ রানে হারিয়েছে বাবর আজমরা। ম্যাচের শুরুতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৪৯ রান সংগ্রহ করে সফরকারীরা। জবাবে খেলতে নেমে ১৩৮ রানে থেমেছে জিম্বাবুয়ের ইনিংস।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা পাকিস্তান দ্বিতীয় ওভারেই হারায় অধিনায়ক বাবরকে। এদিকে জীবন পেয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি ফখর জামান। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানকে বোল্ড করে দেন ওয়েসলি মাধেভেরে। এই অফ স্পিনারের পরের ওভারে শিকার অভিজ্ঞ মোহাম্মদ হাফিজ।

এক প্রান্ত আগলে রেখে একাই লড়াই করে যান রিজওয়ান। ৪৮ বলে তুলে নেন ফিফটি। তাকে সঙ্গ দিতে পারেননি দানিশ আজিজ ও হায়দার আলিও। দুই জনকেই ফেরান পেসার লুক জংউই। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানো দলটির রান একশোর পা করে ১৬তম ওভারে।

শেষ ওভারে রিচার্ড এনগারাভাকে ৩ চার ও এক ছক্কায় উড়িয়ে ২০ রান নেন রিজওয়ান। এতে দেড়শোর কাছে পৌঁছে পাকিস্তানের রান। রিজওয়ান অপরাজিত থাকেন ৮২ রান নিয়ে। তার ৬১ বলের ইনিংসে ১০ চারের পাশে একটি ছক্কা।

তাড়া করতে নেমে জিম্বাবুয়ে ১০০ রান তুলেছে পাকিস্তানের চেয়ে ভালো ব্যাট করে। এ সময়ের মধ্যে জিম্বাবুয়েও ৫ উইকেট হারিয়েছে কিন্তু ওভারসংখ্যা তখন ১৩.২। জয়ের জন্য শেষ ৫ ওভারে ৫২ রান দরকার ছিল জিম্বাবুয়ের।

রায়ার্ন বার্ল ও লুক জঙ্গুয়ে শেষ ১২ বলে ২৮ রানের দূরত্বে নিয়ে যান জিম্বাবুয়েকে। ১৯তম ওভারে মোহাম্মদ হাসনাইন মাত্র ৮ রান দেওয়ায় শেষ ওভারে ২০ রানের লক্ষ্য আর পূরণ করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। ৩৪ রান এসেছে ক্রেগ আরভিনের ব্যাট থেকে। ২৩ বলে ৩০ রানে এক প্রান্ত ধরে রেখেছিলেন লুক জঙ্গুয়ে। পাকিস্তানের হয়ে ৩ উইকেট নেন উসমান কাদির।